Connect with us

গল্প

নীল মলাটের গল্প

Published

on

নীল মলাটের গল্প ফারজানা মিতু

নীল মলাটের গল্প || ফারজানা মিতু

সকাল থেকেই হুটোপুটি লেগে যায় শায়লার। মা ছেলের সংসারে এতো কি কাজ? এই কথা প্রায় শুনতে হয় মায়ের কাছ থেকে। শায়লার সমস্যা তো মা বুঝবে না। মা কেনো, আসলে কেউই বুঝবেনা। একটা মেয়ে আছে যাকে সময় অসময় কল দিয়ে ডেকে আনে শায়লা। যার কাজ শায়লার ছেলে কোকোর সাথে থাকা। মেয়েটি পড়াশোনার বাইরে শায়লার ছেলের দেখাশোনা করে দিব্যি হাত খরচ চালিয়ে নেয়। সমস্যা একটাই শায়লাকে কখন কাজে বের হতে হবে সেটার কোন ঠিক থাকেনা। আজকেও আগে থেকে জানতো না যে বের হতে হবে। সকালে ঘুম ভেঙে চোখ না মেলতেই কলটা আসে। পাশে তাকিয়ে একবার ছেলেটাকে দেখে, তারপরই উঠে পরে। ছেলের জন্য বিকেলের নাস্তা আর রাতের রান্না করে রেখে যেতে হবে, সাথে মেয়েটা থাকবে, ওর জন্যও করতে হবে। ছুটা বুয়া কখন আসবে সেটার অপেক্ষা না করে শায়লা কাজে লেগে যায়। ফ্রিজ থেকে মুরগী বের করে ভিজিয়ে দেয়, সাথে পোলাও করে ফেলবে তাতেই কোকো খুশি হয়ে যাবে। বিকেলের জন্য একটু নুডলস। আম্মু, আম্মু।

কোকোর ডাক শুনে শায়লা দৌড়ে আসে। উঠে গেছো?

আম্মু আমার কি আজকে স্কুল আছে?

না বাবা। আজকে শনিবার। আজকে তোমার স্কুল বন্ধ।

কি মজা। আম্মু তাহলে আজকে কি আমরা নানুর বাসায় যাবো? শায়লার মনটা খারাপ হয়ে যায় কোকোর কথা শুনে। ছেলেটা স্কুল ছুটি পেলেই অস্থির হয়ে যায় নানুর বাড়ি যাবার জন্য। ওইখানে নানু আর নানার আদর যেভাবে পায়, সেটা আর কোথাও তো পায়না। শায়লার মা ঠিক একটু পরেই ফোন দিয়ে বলবে যাবার জন্য। বাবা, যাও ফ্রেস হয়ে আসো। আমি তোমাকে ব্রেড টোস্ট করে দিচ্ছি। কোকো বিছানা থেকে উঠে গেলে, শায়লা কিছুক্ষণ আরও বসে থাকে। আজকে শরীর চলছে না। কয়েকদিন ধরে রাতে জ্বর আসে, আর সারাদিনই সেই জ্বরের ভাবটা শরীরে লেগে থাকে।কোকোকে টোস্ট আর ডিম দিয়ে শায়লা আবারও ছুটে রান্নাঘরে। বুয়া ইতিমধ্যে চলে এসেছে। আপা আজকে এতো তাড়াহুড়া করতেছেন যে, কাম আছে কোন?

হম। বাইরে যেতে হবে আমার। তুমি তাড়াতাড়ি কাজ শেষ করে যাও। ওহ রিবাকে তো কল করা হয়নি, সর্বনাশ রিবা যদি আসতে না পারে তাহলে বিশাল ঝামেলায় পরে যেতে হবে। হ্যালো রিবা?

জি আপু, বলেন।

তুমি কি আজকে আসতে পারবা পাঁচটার দিকে?

সরি আপু, আমার কালকে একটা টেস্ট আছে সেটার প্রস্তুতি নিতে হবে। আজকে যে পারবোনা।

কি বলো, তাহলে তো ঝামেলায় পরে যাবো।

প্লীজ আপু আজকে একটু ম্যানেজ করেন। শায়লা ফোন রেখে মাথায় হাত দিয়ে বসে পরে। আজকে ওর যেতেই হবে। আজে মিস করা যাবেনা। আম্মু, তোমার কি মন খারাপ? সকাল থেকে তুমি কথা বলছো না।

আমি দেখোনা কতো কাজ করছি। তাই কথা বলার সময় পাচ্ছিনা। ছেলের সাথে কথা বলছে সত্যি কিন্তু মাথায় টেনশন যে কি করবে। আজকে না গেলেই না। মায়ের বাসায় সহজেই রেখে আসা যায় কিন্তু মা অনেক প্রশ্ন করবে। মায়ের চোখের দিকে তাকিয়ে মিথ্যে বলা কঠিন। সহজেই ফাঁকটুকু ধরতে পারবে। শায়লা মাকে এই ফাঁকটুকু ধরতে দিতে চায়না। কাজ করতে করতে চিন্তা করে কি করা যায়। আপা আমি কি কালকে আমু না?

জমিলা একই প্রশ্ন সবসময় কেন করো? আমিতো বলেছি তোমাকে আমি যেদিন কাজে যাবো তারপরের দিন তুমি আসবেনা।

আইচ্ছা আপা, আমারে কেন আইতে মানা করেন?

মানা করি কারণ আমি খুব টায়ার্ড থাকি তাই ঘুমিয়ে থাকি সারাদিন। তুমি আসা মানে আমার রেস্ট হবেনা।

কি জানি আপা, বুঝিনা। জমিলা আবারও কাজে মন দেয়। আম্মু, নানু কল করেছে। শায়লা পোলাও নেড়ে দিয়ে তাড়াতাড়ি মায়ের ফোন ধরে।

কিরে কি করছিলি? আজকে আসবিনা?

শায়লার মাথায় হঠাৎ করেই একটা বুদ্ধি আসে। মা আর বলো না, কয়দিন থেকে শরীরটা ভালো যাচ্ছেনা, একটু যে সারাদিন রেস্ট নিবো সেটাও পারিনা।

এক কাজ কর। কোকোকে আমার এখনে দিয়ে যা, তুই সারাদিন তাহলে রেস্ট নিতে পারবি। নাহয় এখানে এসে থাক আজকে।

নাহ মা, আমার ঘুম দরকার। তোমার ওখানে গেলে হবেনা।

তাহলে দিয়ে যা কোকোকে।

আসছি মা। শায়লা সস্তির নিঃশ্বাস ফেলে। পনেরো মিনিটের মাথায় বের হয়ে পরে ছেলেকে নিয়ে। শায়লার বাবার সামান্য পেনশনের টাকায় সংসার চলে দুজনের তাই শায়লা সেখানে বোঝা হতে চায়নি। শফিক মারা যাবার পর তাই শফিকের কেনা এই ছোট ফ্ল্যাট থাকায় শায়লার থাকার কোন চিন্তা করতে হয়নি। এই ফ্ল্যাটটাই সম্বল। ওর মা জানে শায়লা পার্টটাইম একটা স্কুলে কাজ করে। সত্যিটা কখনোই জানতে দেয়া যাবেনা। শায়লা বের হয়ে যায় ছেলেকে নিয়ে।

বাসায় ফিরে গোসল করে শায়লা আয়নার সামনে দাড়ায়। খুলে ফেলে শরীরের সব বসন। এই শরীরটাই ওর সম্বল। যা ওকে দিন শেষে টাকা এনে দেয়।ঘরে বাজার সব শেষ। আজকে শায়লার যাওয়াটা খুব দরকার। হাতে একদম টাকা নেই। কোকোর টিফিন, স্কুলের বেতন বাকি, সাথে আরও কতো কি। এক রাশ সুগন্ধি শরীরে মেখে সাজাতে বসে নিজেকে। নিখুত নিপুন ভাবে সাজাতে হবে নিজেকে যেন শায়লাকে দেখলেই পাগল হয়ে ওঠে রাতের বুকে শান্তি খোঁজা মানুষেরা। শায়লার শান্তি দরকার নেই, শুধু জানে বাসায় ফিরে আসতে হবে টাকা নিয়ে, যে টাকা মুছে দেবে অজস্র কষ্টের গ্লানি।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

(ভিডিও)
অন্যান্য1 month ago

আলোচনায় ‘রস’ (ভিডিও)

মাসুমা রহমান নাবিলা (Masuma Rahman Nabila)। ছবি : সংগৃহীত
ঘটনা রটনা5 months ago

‘আয়নাবাজি’র নায়িকা মাসুমা রহমান নাবিলার বিয়ে ২৬ এপ্রিল

‘মিথ্যে’-র একটি দৃশ্যে সৌমন বোস ও পায়েল দেব (Souman Bose and Payel Deb in Mithye)
অন্যান্য5 months ago

বৃষ্টির রাতে বয়ফ্রেন্ড মানেই রোম্যান্টিক?

Bonny Sengupta and Ritwika Sen (ঋত্বিকা ও বনি। ছবি: ইউটিউব থেকে)
টলিউড5 months ago

বনি-ঋত্বিকার নতুন ছবির গান একদিনেই দু’লক্ষ

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)
অন্যান্য5 months ago

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)

ভিডিও7 months ago

সেলফির কুফল নিয়ে একটি দেখার মতো ভারতীয় শর্টফিল্ম (ভিডিও)

ঘটনা রটনা7 months ago

ইউটিউবে ঝড় তুলেছে যে ডেন্স (ভিডিও)

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌'কথার কথা' (প্রমো)
সঙ্গীত8 months ago

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌’কথার কথা’ (প্রমো)

সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া
সঙ্গীত8 months ago

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান গাইলেন সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া

মাহিমা চৌধুরী (Mahima Chaudhry)। ছবি : ইন্টারনেট
ফিচার9 months ago

এই বলিউড নায়িকা কেন হারিয়ে গেলেন?

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : তাহমিনা সানি
নির্বাহী সম্পাদক : এ বাকের
প্রকাশক : রামশংকর দেবনাথ
বিভাস প্রকাশনা কর্তৃক ৬৮-৬৯ প্যারীদাস রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা-১১০০ থেকে প্রকাশিত।
ফোন : +88 01687 064507
ই-মেইল : rupalialo24x7@gmail.com
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রূপালীআলো.কম