Connect with us

কবিতা

তুষার কবির-এর গুচ্ছ কবিতা

Published

on

তুষার কবির-এর গুচ্ছ কবিতা

তাঁবু

ওখানেই পড়ে আছে যতো ঘুমের ঘুঙুর;
মদ মোহ প্রেম কাম আর মধু
যারা শুধু চাইছে কেবলি আজ ডুবে যেতে
অভ্র, ভায়োলিন আর ভ্রমরের স্বরে

তাদের আস্তিনে দ্যাখো জমে আছে
সিরামিক রোদ, পরিযায়ী তিতিরের ডানা—
ওষ্ঠের কুঠুরি খুলে তারা জড়ো করে
লালাভ দ্রাক্ষার রস, চকমকি প্রিজমের কণা!

তন্দ্রালস তুন্দ্রাঞ্চল থেকে উঠে আসা
এই তাঁবু—নভোনীল থেকে দেখা যাচ্ছে
ঠান্ডা বরফকুটির—ঝল্সানো হরিণীর ঘ্রাণে
শিকারির বুনো রক্ত মেতে ওঠে কুহক বিভ্রমে!

তাঁবুর নিচেই আজ চাইছি দু’হাতে
শাদা শাবকের ডানা, মেদহীন তরুণীর নাভি—
কোয়েল যেভাবে ঘুম দেয় সেই
পালক ছড়ানো ঘুম—স্বর্গভ্রষ্টা ডাকিনীর চাবি!

 

হিমবাক্স

এ শীতে আমাকে ডেকে যাচ্ছে শুধু
প্রান্তরের হরিৎ হাওয়া
বিকেলের ধূলিচিত্র
ফেলে দেয়া দূরের কিন্নরী!

আর আমি ধীর পায়ে হেঁটে চলি
শীতলাগা মেথরের মত;

কুয়াশার ক্যারাভান ছেড়ে
এই শীতে আমি হেঁটে চলি
জেগে ওঠা খড়ের গাদায়—
ধূসরিম নদীর কিনারে!

দেখি কোনো এক শীতপিয়নের হিমবাক্সে
নৈঃশব্দ্যের ধূলিখামে
ছোট ছোট প্রেমের হরফে
কে যেন লিখছে শুধু
অসমাপ্ত শীতসমাচার!

দ্যাখো প্রান্তরের কুয়াশারা এখন মুদ্রিত;
বিষণ্ন ছাপাখানায়
লণ্ঠনের নীলাভ রেখায়—
শীতগ্রস্ত কবিগৃহে!

 

ঘুমসরোবর

খুলে যায় ঝিনুকের রাতচেরা গান!

স্মৃতিগুলো বিশদ হাতড়ে
খুঁজে পাই সেই রক্তঘুম—কোরকের ওম—
পুরনো পয়ার ঠেলে উঠে আসে
সরোবরের অতল গহিন স্বর!

হারানো তোরঙ্গ ফুঁড়ে আরো পাই
দুধশাদা কবুতর—ধূলিখাম চিঠি—
আর পলাতক পিয়নের কান্না!

পদ্মভাসা সরোবরে খুঁজে পাই
ভেজা স্তনগুচ্ছ, যোনিমুক্তো;
কোমল কাঁচুলি খুলে বের হয়
বর্তুল মাংসের আভা
দ্রুতশ্বাস ওঠানামা
খরগোশ চপলতা আর
পদ্মিনী নারীর
উত্তালছন্দা প্রশস্ত নিতম্বের শোভা!

ঘুমসরোবর থেকে উপচে পড়ছে
যতো গোলাপ পাপড়ি;
বেজে ওঠে সরোদের সুরভ্রম—
আর ভেসে আসে
হাওয়ায় হারিয়ে যাওয়া সেই রক্তস্বর!

 

উপাখ্যান

ওর ডেরা থেকে বের হয়ে
প্রান্তরের শেষ রেখা ধরে
আমি কিছুটা হেঁটে গেলাম;
শূন্যতার পর আরো খানিক শূন্যতা মিশে গেছে
হাওয়াঘেরা মেঘরাশির মাঝে

দেখি কতিপয় জংলি মানুষের পদচ্ছাপ;
জেব্রার গ্রীবার হাড়,
টোটেম গুহার গায়ে ছাপচিত্র,
সূর্যাস্তের উল্কি আঁকা তরুণীর উরু,
বাঁশের খোড়লে মদ,
বর্শা হাতে মেতে থাকা অগ্নিনৃত্যের উৎসন্ন উৎসব,
চেরাই কাঠের দাবানলে
তিতিরের পোড়া মাংস ঝল্সে খেতে খেতে
ওদের কণ্ঠনালির মাঝখান থেকে উপ্চে পড়ছে
টালমাটাল রতিক্রিয়ার ধ্বনি!

শূন্যতার পর মিশে গেছে আরো খানিক শূন্যতা
সভ্যতার চূড়া বেয়ে উঠে যাচ্ছে
গহিন গোঙানি;
পৃষ্ঠা পৃষ্ঠা লগবুকে লেখা হয়ে যাচ্ছে
কোনো এক বাতিল পুরোহিতের স্বর্গভ্রষ্ট উপাখ্যান!

 

হরিণী

হরিণী, তোমার ধূলিপথে হেঁটে হেঁটে দেখি
বেজে যায় চারিদিকে
একটানা পাতার মর্মর
ফেলে দেয়া হাড়ের কিন্নরী!

তোমারই হরিৎকথনে মেতে
আমি ডুবে যাই
দিকচেরা মোহে—
ঘুরপাক খেতে থাকি ভ্রমে ও বিভ্রমে!

তোমার কস্তুরি ঘ্রাণে খুঁজে পাই
পালক ছড়ানো সরোবরে
স্নানরতা কোনো রূপসী মেয়ের গান।

দ্যাখো জঙ্গলের এই পথে বেজে ওঠে
হাওয়াহরিৎ সুর
বিহঙ্গীর মধুকণ্ঠী স্বর—
জানি মাধুকরী সব জ্বলে ওঠে
তোমারই চিত্রল রেখায়!

হরিণী, আমাকে দ্যাখো—দিগ্ভ্রান্ত পথভ্রষ্ট
এক চারণ কবির ছাপ
আমারই দুই চোখে—

আর খুঁজে ফিরছি জঙ্গলের ঘাসে ঘাসে
তোমারই পায়ের ছাপ—
মুদ্রিত পায়ের রেখা
মর্মচেরা হাড়ের প্রতিভা!

 

শীতচিঠি

শীতের চিঠিরা ওড়ে—জেগে ওঠে মোহ, মায়া, ভ্রম
কে যেন শীতের ব্যথা লিখে যায় অচল পয়ারে
রেস্তোরাঁয় সুর ওঠে—সরাইখানায় জাগে প্রেম
শীতের ওমের খোঁজে চিঠি লিখে কে আর কাহারে!

মধুকণ্ঠি প্রেম জাগে—আরো জাগে রতির পালক
শীতলাগা বেড়ালের চোখে নাচে ঘুম আশাবরী
তাঁবুর মাঝেতে জানি জড়ো হয় খড়ের কোরক
বেজে যায় একটানা—সান্ধ্যস্বরে দূরের কিন্নরী!

তুমিও শীতের কাছে চাও শুধু রক্ত, মাংস, ওম
দূরের পয়ারে দ্যাখো বেজে যায় কান্না পরম্পরা
শীতের সরোদ শোনো—শুধু জাগে প্রত্ন দুঃখক্রম
তোমার নাভির খাঁজে আছে জানি দূর সন্ধ্যাতারা!

শীতের শরীর খুলি, খুলে যায় পাখোয়াজ ভাঁজ
কিছুটা প্রেমের টানে জেগে ওঠে ধূলির পথিক
শীতের বাকল নাচে—ঘুঙুর সুন্দরী দেয় নাচ
ঘোড়ার কেশরে দ্যাখো জেগে ওঠে শীতের লিরিক!

 

সৈকতে তাঁবুর নিচে

অই রৌদ্রছায়া পার হয়ে পেয়ে যাই দীর্ঘ নারিকেল সারি, তিয়াসার তরুবীথি, জানি এখানে জমানো আছে যতো বুকঝিম্ ঘুমের কিন্নরী—আর তুমুল আছ্ড়ে পড়া ঢেউ! এ সমুদ্রতীরে আছে কিছু প্রত্নপ্রায় প্যাঁচা—চোখের কোটর বেয়ে নেমে যায় তাদের গহিন জলধারা, মর্মচেরা মার্মেইড তার ঝাঁপি খুলে কেবলি শুনিয়ে যায় বীণাবাদকের কান্না! অই লাল টালিঘর পার হয়ে অবলুপ্ত মঠের কিনারে পর্তুগিজ এক পর্যটক হেঁটে যায়; চকচকে বালির ভেতর জবুথবু শুয়ে থাকে জেলিমাছ—ঝাউয়ের ঝাড় পার হয়ে কেউ যেন শুনতে থাকে অবিশ্রান্ত সমুদ্র সংলাপ, ভগ্ন বালিয়াড়ি ছেড়ে সূর্যাস্তের জলছাপে উড়ে যায় এক সারসের গ্রীবা। অই দূর বাতিঘর থেকে দেখা যায় জোয়ারের স্রোতকান্না—গাঙচিল মেলে দেয় তার সুবিশাল ডানা—নক্ষত্রেরা উঁকি দেয় জল স্রোতে—এ দৃশ্যবিভ্রমে ঘুরপাক খেতে থাকে মনোভূমি—দেখি সৈকতে তাঁবুর নিচে বসে!

তুষার কবির

তুষার কবির

তুষার কবির

জন্ম

  • ২ ফেব্রুয়ারি; ১৯৭৬

 

শিক্ষা

  • এম.বি.এ. (মেজর ইন মার্কেটিং)
  • সম্মানসহ স্নাতকোত্তর (ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

কাব্যগ্রন্থ

  • বাগ্দেবী আমার দরজায় (২০০৬)
  • মেঘের পিয়ানো (২০০৭)
  • ছাপচিত্রে প্রজাপতি (২০০৮)
  • যোগিনীর ডেরা (২০০৯)
  • উড়ে যাচ্ছে প্রেমপাণ্ডুলিপি (২০১০)
  • কুহক বেহালা (২০১২)
  • রক্তকোরকের ওম (২০১৪)
  • ঘুঙুর ছড়ানো ঘুম (২০১৫)
  • তিয়াসার তৃণলিপি (২০১৬)
  • হাওয়াহরিৎ গান (২০১৭)

 

কবিতা-বিষয়ক প্রবন্ধ

  • কুঠুরির স্বর (২০১৬)

সম্মাননা

  • ‘কালি ও কলম তরুণ কবি ও লেখক পুরস্কার ২০১৬’
  • ‘দেশ পাণ্ডুলিপি পুরস্কার ২০১৫’

 

 

 

 

Facebook

(ভিডিও)
অন্যান্য1 month ago

আলোচনায় ‘রস’ (ভিডিও)

মাসুমা রহমান নাবিলা (Masuma Rahman Nabila)। ছবি : সংগৃহীত
ঘটনা রটনা5 months ago

‘আয়নাবাজি’র নায়িকা মাসুমা রহমান নাবিলার বিয়ে ২৬ এপ্রিল

‘মিথ্যে’-র একটি দৃশ্যে সৌমন বোস ও পায়েল দেব (Souman Bose and Payel Deb in Mithye)
অন্যান্য5 months ago

বৃষ্টির রাতে বয়ফ্রেন্ড মানেই রোম্যান্টিক?

Bonny Sengupta and Ritwika Sen (ঋত্বিকা ও বনি। ছবি: ইউটিউব থেকে)
টলিউড5 months ago

বনি-ঋত্বিকার নতুন ছবির গান একদিনেই দু’লক্ষ

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)
অন্যান্য5 months ago

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)

ভিডিও6 months ago

সেলফির কুফল নিয়ে একটি দেখার মতো ভারতীয় শর্টফিল্ম (ভিডিও)

ঘটনা রটনা7 months ago

ইউটিউবে ঝড় তুলেছে যে ডেন্স (ভিডিও)

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌'কথার কথা' (প্রমো)
সঙ্গীত8 months ago

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌’কথার কথা’ (প্রমো)

সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া
সঙ্গীত8 months ago

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান গাইলেন সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া

মাহিমা চৌধুরী (Mahima Chaudhry)। ছবি : ইন্টারনেট
ফিচার9 months ago

এই বলিউড নায়িকা কেন হারিয়ে গেলেন?

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : তাহমিনা সানি
নির্বাহী সম্পাদক : এ বাকের
প্রকাশক : রামশংকর দেবনাথ
বিভাস প্রকাশনা কর্তৃক ৬৮-৬৯ প্যারীদাস রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা-১১০০ থেকে প্রকাশিত।
ফোন : +88 01687 064507
ই-মেইল : rupalialo24x7@gmail.com
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রূপালীআলো.কম