Connect with us

রূপালী আলো

অ্যাকশন অ্যান্ড গ্ল্যামার নায়িকা আলভিরা ইমু

Published

on

আলভিরা ইমু

চলচ্চিত্রের নতুন অতিথি আলভিরা ইমু। ফেনীতে ছিলেন ক’দিন ‘খুশি’ ছবির আউটডোরে। সেখানে প্রখর রোদে কাজ করেন তিনি। এজন্য তার গায়ের রঙ তামাটে হয়ে গেছে। ওজনও কমেছে। যদিও আরও পাঁচ কেজি কমাতে চান তিনি। বিস্তারিত লিখিছেন শাকিলুর রহমান


পপির পর নবাগত আলভিরা ইমু ছাড়া এতোটা উচ্চতা সম্পন্ন আর কোনো নায়িকা ঢাকার চলচ্চিত্রে আসেননি। নায়িকা মাহিকে কিছুটা উচ্চসম্পন্ন মনে হলেও তা আলভিরা ইমুর মতো নয়। তাদের কেউ কেউ ইতোমধ্যেই আড়ালে চলে গেছেন। কেননা নিজেদের সক্ষমতা অর্জনে ব্যর্থ হান তারা। ফলে একই সঙ্গে অনেক ছবিতে কাজ করেও ব্যবসা সফল ছবি উপহার দিতে পারেননি তারা। যা এক সময়ে দিয়েছে মৌসুমী, শাবনূর এবং পপিরা। মৌসুমীর প্রথম সিনেমাটাই ছিল সুপার-ডুপার হিট। ফলে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু

পপি অভিনীত ‘কুলি’ ছবির উনত্রিশ শো’র উনত্রিশ শো’ই ছিল ফুল। শাবনূর শুধু গ্ল্যামার নয়, নিজের অভিনয়গুণে দর্শকের মাঝে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলেন। তবে তখন ছবির বাজারও ছিল ভালো। যদিও এখন আর সেই বাজার নেই। এখন তারকা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেতে যেমন প্রতিযোগিতার মধ্যে পড়তে হয় তেমনি করতে হবে প্রচণ্ড পরিশ্রম এবং নিপুণ অভিনয় দক্ষতা থাকা একান্ত আবশ্যক।

আলভিরা ইমু যেমন পরিশ্রম করতে জানেন, তেমনি অভিনয় দক্ষতাও খুব ভালো বলে জানা যায়। উচ্চতার জন্য অ্যাকশন সিনেমার জন্য বেশ যুইসই বলে অনেকেই মনে করেন। তার দৈহিক গঠন পপির মতোই আকর্ষণীয়।

খুব ভালো ভাবেই চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু করেছেন তিনি। শুরুতেই আলভিরা ইমু ‘গোপন সংকেত’, ‘খুশি’, ‘এক রাতের জন্য’, ‘ফালতু’ এবং ‘জেনারেশন গ্যাপ’ শিরোনামের পাঁচটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। কাজ করেছেন একটি বিজ্ঞানেও।

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু

এ প্রসঙ্গে আলভিরা ইমু বলেন, ‘আমার অবস্থা এখন এমন হয়েছে যে, কাজের মধ্যে না থাকলে ভালোই লাগে না। ছবির জগৎটা আমার পরিবারের মতো। আশার কথা এই যে, আমার কোনো ছবির কাজ থেমে নেই। আশা করি শিগগির এগুলোর শুটিংয়ের কাজ শেষ হয়ে যাবে।’

প্রথম সিনেমা তাজুল ইসলাম পরিচালিত ‘গোপন সংকেত’ প্রসঙ্গে আলভিরা ইমুর বলেন, ‘আমাকে চলচ্চিত্রে সুযোগ করে দেন জিয়া ভাই। আমি তার সম্মান রক্ষা করে এবং নিজের সম্মান রেখে চলচ্চিত্রে প্রতিষ্ঠা পেতে চাই। সকলের সহযোগিতা আমার খুবই প্রয়োজন। যে সুযোগ পেয়েছি, সেই সুযোগের যদি সঠিক ব্যবহার করতে না পারি তাহলে নিজেকে ব্যর্থই মনে হবে। আমার প্রথম ছবি সাইমন ভাইয়ের সঙ্গে। তিনি আমাকে যথেষ্ট সহযোগিতা করছেন। তার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।’

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু

তিনি বলেন, ‘আমি নায়িকা হতে চাই না। আমি চাই একজন ভালো শিল্পী হতে। এজন্য আমাকে যত বেশি শ্রম দিতে হয় তার জন্য আমি প্রস্তুত আছি। আমার প্রবল ইচ্ছা আছে, বাকিটুকু আল্লাহ জানেন। ’

আলভিরা ইমুর কথা ধরেই বলা যায় শিল্প হচ্ছে মানুষের ঐতিহ্যগত ও মজ্জাগত। মানব সমাজের শুরুতেই মানুষ গুহাচিত্রের মাধ্যমে তার শৈল্পিক প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছে। তারা মাটিতে খোদাই করেছে শিকারের ছবি। আকিঝুকি করেছে নিজের মনোভাব। নিজেকে প্রকাশ করার এই আদি মনোবৃত্তি ধারাবাহিকতা নিয়ে সঞ্চারিত হচ্ছে প্রজন্মান্তরে। সুতরাং এই নিয়ে দ্বিধায় থাকার কোনো কারণ নেই আলভিরা ইমুর। শুধু তাকে অন্তরে সাহস সঞ্চয় করে এগিয়ে যেতে হবে।

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু প্রথম সিনেমা ‘গোপন সংকেত’ হলেও তিনি চলচ্চিত্রের সঙ্গী হয়েছিলেন আগেই। তিনি জানান, ২০১৫ সালে সন্ধানী চলচ্চিত্রে দুটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন। কিন্তু পারিবারিক অসন্তোষের কারণে তখন আর ছবি দুটি করা হয়নি তার।

এই বিষয়ে ইমু বলেন, ‘আমি নিজের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দেইনি। পরিবারের সিদ্ধান্তকে সহজভাবে মেনে নিয়ে সে সময় আমি বিদেশ চলে যাই। ফিরে এসেছি ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে। এখন পরিবারের অনুমতি পেয়েছি। কাজ করছি। এখানেই আমার ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে চাই।’

আলভিরা ইমু জানান, নাচে তার হাতেখড়ি কলকাতায়। এখন শিখছেন সুমন সাহা নামে একজন শিক্ষকের কাছে। তবে তিনি চলচ্চিত্রে আসার আগে র‌্যাম্পে কাজ করেছেন। শো করেছেন ২৫টি। তার প্রথম র‌্যাম্প শো হয় ঢাকার প্যান প্যাসিফিক হোটেলে বিবি রাসেলের কোরিওগ্রাফিতে। পোশাক ছিল পাকিস্তানি। আলভিরার উচ্চতা পাঁচ ফুট সাত ইঞ্চি। স্বভাবতই পোশাকগুলোতে তাকে মানিয়ে গেছে।

চলচ্চিত্রে এসে কি দেখতে পেলেন জানতে চাওয়া হলে আলভিরা ইমু বলেন, ‘এখানে প্রতিযোগিতা আছে, পলিটিক্সও আছে। নতুনদের সুযোগ দিতে চায় না কেউ। অন্যান্য দেশে নতুনদের প্রতিই সবার আগ্রহ। সেখানে নতুনরা যেমন সুযোগ পায় তেমনি টিকেও থাকে। এখানে কেউ কাউকে সহযোগিতা করতে চায় না।’

আলভিরা ইমু

আলভিরা ইমু

তবে তিনি আরো বলেন, ‘আমার নায়ক সাইমন আমাকে যথেষ্ট সহযোগিতা করছেন। ক্যামেরার সামনে সবাই সহযোগিতার মধ্যে থাকলেও সাইমন ভাই ভুল করলে আমাকে সংশোধন করে দেন। দেখিয়ে দেন অভিব্যক্তিটা কি ভাবে দিতে হবে। চিত্রগ্রাহক তপন আহমেদসহ ইউনিটের সবারই এবং আমার পরিবারে রতন ও ভাবি বেশি সহযোগিতা পাচ্ছি আমি। নতুন হিসেবে সবাই আমার প্রতি খেয়াল রাখছে। পরিচালক তাজুল ইসলামও যতক্ষণ পর্যন্ত না সন্তুষ্ট হচ্ছেন ততক্ষণ পর্যন্ত রেহাই দেন না। এজন্য কাজ করে আরও বেশি মজা পাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, আলভিরা ইমুর বাবা-মা থাকেন যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসে। মা গৃহিনী হলেও বাবা একজন ব্যবসায়ী। নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএর শেষ সেমেস্টারের ছাত্রী তিনি। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

(ভিডিও)
অন্যান্য1 month ago

আলোচনায় ‘রস’ (ভিডিও)

মাসুমা রহমান নাবিলা (Masuma Rahman Nabila)। ছবি : সংগৃহীত
ঘটনা রটনা5 months ago

‘আয়নাবাজি’র নায়িকা মাসুমা রহমান নাবিলার বিয়ে ২৬ এপ্রিল

‘মিথ্যে’-র একটি দৃশ্যে সৌমন বোস ও পায়েল দেব (Souman Bose and Payel Deb in Mithye)
অন্যান্য5 months ago

বৃষ্টির রাতে বয়ফ্রেন্ড মানেই রোম্যান্টিক?

Bonny Sengupta and Ritwika Sen (ঋত্বিকা ও বনি। ছবি: ইউটিউব থেকে)
টলিউড5 months ago

বনি-ঋত্বিকার নতুন ছবির গান একদিনেই দু’লক্ষ

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)
অন্যান্য5 months ago

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)

ভিডিও7 months ago

সেলফির কুফল নিয়ে একটি দেখার মতো ভারতীয় শর্টফিল্ম (ভিডিও)

ঘটনা রটনা7 months ago

ইউটিউবে ঝড় তুলেছে যে ডেন্স (ভিডিও)

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌'কথার কথা' (প্রমো)
সঙ্গীত8 months ago

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌’কথার কথা’ (প্রমো)

সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া
সঙ্গীত8 months ago

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান গাইলেন সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া

মাহিমা চৌধুরী (Mahima Chaudhry)। ছবি : ইন্টারনেট
ফিচার9 months ago

এই বলিউড নায়িকা কেন হারিয়ে গেলেন?

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : তাহমিনা সানি
নির্বাহী সম্পাদক : এ বাকের
প্রকাশক : রামশংকর দেবনাথ
বিভাস প্রকাশনা কর্তৃক ৬৮-৬৯ প্যারীদাস রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা-১১০০ থেকে প্রকাশিত।
ফোন : +88 01687 064507
ই-মেইল : rupalialo24x7@gmail.com
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রূপালীআলো.কম