Connect with us

কবিতা

অরবিন্দ চক্রবর্তী-এর গুচ্ছ কবিতা

Published

on

অরবিন্দ চক্রবর্তী-এর গুচ্ছ কবিতা

শীতের হাড়নামচা

সারামুখে ব্যান্ডেজ করে এসেছে কুয়াশা
এবার যা ঘটবে সবই মারু ডাকাতের কাণ্ড
দস্যুতা করে সপাসপ ঢুকে যাবে
গ্যাবার্ডিন শেমিজের নিচে
কুমারী তার বুকের ম্যাপল ছিঁড়ে
হুলস্থুল ছড়িয়ে দেবে
বঙ্কিম বসন্তের সকল নিভৃত ডালপালায়
ফাগুন কী তবে দাঁতে কাটবে হিংসালতিকা
মনে বাঘ এসেছে অজুহাতে
শীতের সাদা গুজব খুলে দেবার মহিমায়
চৈত্রকে সাঁকোর ওপারে দাঁড় করিয়ে
সেও ষড়ঋতুর সঙ্গে করবে বৈঠকি সমঝোতা

তবে বৈশাখের পক্ষে জগতের কিছু স্বর্গীয়দের
রয়েছে যে যোগাযোগ
তা হয়তো শীতকাতুরেদের অনেকেই জানো না।

২.
মধ্যরাতের মশকরা

ক.
আকাশের যথার্থ দক্ষিণে বয়স টাঙিয়ে রাখুন
ফুলকিশোরীর হ্যান্ডবলের বৈকালিক ভক্ত আপনি
ছাপাপত্র নিয়ে অফিসে গেলেন কী মরলেন
ওয়ার্ডরোব খুলছেন তো দেখলেন স্ত্রী চমৎকার
hate you বলতে শিখেছে।
দেয়ালের টিকটিকি দেখবেন সংসার বিবাগী ব্যথায়
তুখোড় মনোযোগী।
আয়ু ঝরে যাচ্ছে, দগদগে কামরাঙার পাশে
আপনার ঘটে যাচ্ছে― কিন্তু অসহায় চিৎ আরশোলা আপনি।

রিমোট কন্ট্রোল হাতে সিরিয়াল কেন খুললেন
এ প্রশ্ন পাশবালিশ করার আগে সিলিংফ্যান আড়ি করে বসবেন।
আচ্ছা বাপধন, কোনো দিন আপনি যে দাবা খেলেননি
এ লজ্জা প্রতিরাতে মশারি ছড়ানোর অভিনয়ে কে এসে উসকে দিয়ে যায়?

খ.
শরীর দেখা হলো। এবার সতর্ক করে নিই।

পা ফসকে গেলে মনে করা যাক― আমাদের গাছে উঠবার অভ্যেস ছিল।

প্রতিদিন সবার পাশে কৌতুকপ্রবণ রাত্রি আসে।
অথবা তোমাকে কোনো দিন পেতে হবে―
এই বানোয়াট সান্ত্বনায় কোলবালিশের সত্যে রাখে গুঁড়ো গুঁড়ো ঘুমের তামাশা।

যদি বলি ভয় পেলে আরোহীগণ, স্বপ্ন তাড়ানোর ছলে ঘুম কেন তাড়ান?
ভোররাতে দরজায় রোদ ওঠাবার নামে
থার্মোমিটারবিহীন যার যার গায়ে কেন বাছেন জ্বরের উকুন।

লোকটা পালাতে চাইবে। অথচ সাহস করে জানতে চাইবে না
টিকটিকি ছুঁলে লেজ কেন ঝরে যায়!

গ.
যেহেতু পথে আছ। দেখা হয়ে যাবে একজন রেলক্রসিংয়ের।
কালো রেখাটিই যদি তোমাকে বলে ফেলে অধিপতি
খামোখাই একবার তাকে পাগল বলবার অধিকার নিয়ো।
পাতার আড়ালে বৃত্ত― চাঁদ যাকে অধঃপতন ডাকে,
তাকেও দেখি টমেটোর মতো গোল―
গড়াতে শুরু করলে কেউ পিছু নেয় আলোবাজের সব ভুতুড়ে লালসা নিয়ে।

আমার জন্য তুলে রেখো অন্ধ বাবুইয়ের গান। রেকর্ডপ্লেয়ারে অহেতুক বাজাব
অবসর পেয়ে ফড়িংকে তুমি কতবার বলেছিলে
নিজেকে মত্ত পালোয়ান ভাবার রূপকথা।

আজ মেঘ করছে, রাক্ষস আসবে পাশের ফ্ল্যাটে
আকাশপথ নিয়ে তাজা পা নকল নিবন্ধ লিখবে।

কথা দিচ্ছি, মহাকাশদস্যুর দেখা পেলে তিনবার শিস বাজিয়ে
তাকে বেহুঁশ করবার প্রেসব্রিফিং আমি করবই।

ঘ.
ধুয়ে ফেলো। রাজহাঁস মাস পেরিয়ে টের পাক জলের উদ্যোগ পুকুরেও থাকে।
উদ্ভ্রান্ত জলচর তলদেশ থেকে তুলে আনুক শীতঘুম, বুঝুক সাইবেরিয়া মানে
বছরজুড়ে একটিই ঋতু।

খুব কাঁপুনি এলে মেয়েটির ভিজে যায়
আজ বিকেলে যে তুখোড় বৃষ্টি হলো, তাহলে বলুন, এ দায় কার?

বেঁচে থাকলে প্রতিদিন ভাবতে হয় ধেয়ে আসছে গেল ঋতুর উপসংহার।
সারমর্ম করে একজন প্রায় সন্ধ্যায় আমাকে কানে-মুখে বলে যায়―
তাপসীদেরও সারা বছরে একটিই ঋতু।

বাবা টিনএজ, মধ্যরাতে জ্বর এলে তুমিও স্মরণে রেখো, পাশবালিশ নিয়ে
বিছানায় গেলে তোমাকেও বোবা যন্ত্রণার বেলেহাঁস হতে হয়।

ঙ.
দুঃখ পাওয়ার জন্য ভাষা গবেষকের প্রয়োজন হবে না।
তেলাপোকার দুর্ধর্ষ দস্যুতা থেকে হাতিরঝিল যেতে যে সরলরেখা
ড্রাইভিং লাইসেন্স না পেয়ে পর্যটনের দিকে চলে গেছে, তার একটি চাকার গল্পই যথেষ্ট।

আজ বন্ধুর মেয়ের সঙ্গে চা খেতে খেতে―
আবাসিক আমাকে ডাকল
সায় দিইনি বলে শহরের সড়কে সড়কে নেমে গেল ফায়ার স্কোয়াডের গাড়ি।

বটপাতা জানে, আমি প্রজাপতি চিনি না
যাকে চিনি সে জন্মদিবস অবমাননাকারী ত্রিশঙ্কু ইউটোপিয়ান―
দুপুররাতে গুহামুখ খুঁড়ে গুঁড়ো গুঁড়ো ফুলস্টপ লিখতে দুর্দান্ত মেধাবী।

চ.
এড়িয়ে চললেও এটি মনোদৈহিক কবিতা―
লিখেছেন বনের ভাড়া না মিটিয়ে পালিয়ে যাওয়া গণ্ডার।

আচ্ছা মীনরাজ, শুনেছি তুমি কাউকে হেফাজত করো।
পাখা ও পাতায় দৈনিক কেএফসিতে যাবার আগে যে বাতাস বিক্রি হয়
তা তো কবেই কিনে ফেলেছে আমাদের পকেট।

আবেগের নামে ফ্ল্যাটের মেয়েটি সকাল-সন্ধ্যা
একটা বিকেল বেশরম দাবি করে
তার জন্যই দিনকে দিন খরচ হচ্ছে কথাশ্যাম্পু।
ভুলেও তুমি আর আমাকে মেডিটেশনে পাঠিয়ো না,
জেনে রাখো, ঘুমও সাতরঙ স্বপ্নকলার ডিটেকটিভ দরজা।

ছ.
আমার পাশে প্রতিদিন একেকটা শাড়িহীন রাত্রি ঘুমায়
দূরের ক্র্যাচ জেনে ফেলেছো জেনেও
তাকে দেব না প্রচার ভার।

আপনিও হয়তো জানেন, যেকোনো
প্রজাপতিই উন্নতমানের দেশীয় পুলিশ।

ঘটনাগুলো কোনো ধরনের সংবাদ হওয়ার
উদ্যোগ নিলেই প্রস্তুত রয়েছে বোলতা ব্যারিকেড।

হুঁশিয়ার ওয়ার্ডরোব, আগামীকাল আমি দরজার বাইরে
আকাশ দেখতে গেলে দিনকে লুকিয়ে রাখবি তালাহীন বুকের গভীরে।

জ.
যেকোনো নামের পাশে রাত্রিকে রেখে, তাহাদের বিড়ালটা শুধু শরীরের প্রসঙ্গই তুলল।
শিকে থেকে লাফিয়ে পড়ে কথা দিল আদিপুঁথি অথবা অতিদীর্ঘিকা লিখবে।
যা লিখল তা আসলে আমাদের নাকের ওপর নরুন ঘোষ জাতীয় পাঠকেরা নিশ্চয়ই
জেনে রেখেছেন।
তবুও নাটকে, মাত্র দেয়ালকেই জাতির সামনে শেয়ানা পাগল সাজিয়ে
একজন কাহিনিকার হতে চলছে রূপশ্রীকাতর,
গোপনে গোপনে আপন সুতোয় লেলিয়ে দিচ্ছে গোয়েন্দা তামাশা।
আর কিছু বেকুব অতিমানব পবিত্র কামরাঙার হাঁটুতে বসে
একটা ছোটগল্পই এগিয়ে নিতে পারছি না।

ঝ.
শুধু ধরে নিন, এক ফর্মা রাত আপনার তালুতে
কিছু হাই গড়িয়ে পড়ছে হিজড়ের অনুমতি পেয়ে
সন্ধ্যায় আপনি অর্ধেকটার পুরোটা মাত করেছেন
এবার বেজে উঠছে একজন বিউটিশিয়ানের তুড়ি
চোখ দেখে বলা ঠিক হয়নি, আপনি ব্রজগীতি জানেন না।
মাইরি বলছি আপনি চলুন স্ট্রবেরি দেবীর কামশালায়
সে ওমর খৈয়াম বেশ জানেন, রবীন্দ্রগীত শুনিয়ে
আপনার কৌমার্যে হাত বসাবেন না।
এমনকি বিছানার মর্যাদা কেমন করে
শ্বশুরবংশীয় রাখতে হয়, সেটাও বেদম জানে।

ঞ.
শ্বশুরের মেয়েটি নিজ ফ্ল্যাটের জানালা দিয়ে
মধ্যরাত ফেলে দিয়ে দেখছে ম্যাজিক

ঝুপড়িঘর থেকে বাবার অবাধ্য সন্তান
দোতলা আর নিচতলা নিয়ে
চালাচ্ছে গবেষণা

ঘরের বা’র হলে বাম জানালার চোখ
নোনতা নোনতা রহস্য করে বাঁচে

নিজেকে নিশ্চয়ই চেনো, যে কিনা দূরপাল্লার
অহংকারে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেয়েছিলে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook

(ভিডিও)
অন্যান্য6 days ago

আলোচনায় ‘রস’ (ভিডিও)

মাসুমা রহমান নাবিলা (Masuma Rahman Nabila)। ছবি : সংগৃহীত
ঘটনা রটনা4 months ago

‘আয়নাবাজি’র নায়িকা মাসুমা রহমান নাবিলার বিয়ে ২৬ এপ্রিল

‘মিথ্যে’-র একটি দৃশ্যে সৌমন বোস ও পায়েল দেব (Souman Bose and Payel Deb in Mithye)
অন্যান্য4 months ago

বৃষ্টির রাতে বয়ফ্রেন্ড মানেই রোম্যান্টিক?

Bonny Sengupta and Ritwika Sen (ঋত্বিকা ও বনি। ছবি: ইউটিউব থেকে)
টলিউড4 months ago

বনি-ঋত্বিকার নতুন ছবির গান একদিনেই দু’লক্ষ

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)
অন্যান্য4 months ago

লাভ গেম-এর পর ঝড় তুলেছে ডলির মাইন্ড গেম (ভিডিও)

ভিডিও5 months ago

সেলফির কুফল নিয়ে একটি দেখার মতো ভারতীয় শর্টফিল্ম (ভিডিও)

ঘটনা রটনা6 months ago

ইউটিউবে ঝড় তুলেছে যে ডেন্স (ভিডিও)

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌'কথার কথা' (প্রমো)
সঙ্গীত7 months ago

ওমর সানি এবং তিথির কণ্ঠে মাহফুজ ইমরানের ‌’কথার কথা’ (প্রমো)

সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া
সঙ্গীত7 months ago

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান গাইলেন সালমা কিবরিয়া ও শাদমান কিবরিয়া

মাহিমা চৌধুরী (Mahima Chaudhry)। ছবি : ইন্টারনেট
ফিচার8 months ago

এই বলিউড নায়িকা কেন হারিয়ে গেলেন?

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : তাহমিনা সানি
প্রকাশক : রামশংকর দেবনাথ
বিভাস প্রকাশনা কর্তৃক ৬৮-৬৯ প্যারীদাস রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা-১১০০ থেকে প্রকাশিত।
ফোন : +88 01687 064507
ই-মেইল : rupalialo24x7@gmail.com
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রূপালীআলো.কম