Connect with us

গল্প

মিলি ও মেঘপরি | মশিউর রহমান | ছোট গল্প

Published

on

মিলি ও মেঘপরি | মশিউর রহমান | ছোট গল্প
মিলি ও মেঘপরি | মশিউর রহমান | ছোট গল্প

সোনাপুকুর শুকিয়ে গেছে। কাজল বিলের পানি কমে গেছে। মাঠেঘাটে কোথাও কোনো পানি নেই। পাখিদের কলকাকলী থেমে গেছে। গাছেদের সবুজ পাতা ঝরে গেছে।

ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা নেচে নেচে গান গেয়ে বেড়ায়।

‘আল্লাহ মেঘ দে, পানি দে, ছায়া দে রে তুই’

বৃষ্টি আসে না। শুকিয়ে যায় কচি কচি ঘাস। গাছেরা আকাশের দিকে তাকিয়ে বলে, বৃষ্টি তুমি ঝরো। আমরা আবার জেগে উঠি।

পাখিরা আকাশে উড়ে উড়ে বলে, বৃষ্টি তুমি কোথায়? সোনাপুকুর কানায় কানায় ভরে উঠুক। কাজল বিল ছলছল করে ঢেউ ছড়াক। মাথাভাঙা নদী আবার তিরতির করে বয়ে চলুক। কিন্তু বৃষ্টি আসে না।

মেঘের দেশের মেঘপরি ঘুমিয়ে আছে। তাই বৃষ্টি নামে না। এসব দেখে ছোট্ট মেয়ে মিলির কান্না পায়। তার বাগানের ফুলগাছ সব শুকিয়ে মরে যাচ্ছে।

সূর্যমুখি কাঁপা কাঁপা গলায় বলে, মিলিসোনা, পানি দাও আমার গায়ে।

হলুদগাঁদা বলে, মিলিসোনা, আমাদের কি আর পানি দেবে না?

সবাই শুধু পানি চায়। মিলির তাই কান্না পায়। ও গাছেদের বলে, আমি কি করে তোমাদের পানি দেব বল? কোথাও যে একফোঁটা পানি নেই। বৃষ্টি যে নামে না, অনেক অনেকদিন ধরে।

 

২.
একদিন মিলি আকাশের দিকে করুণ নয়নে তাকায়। তারপর বলে, ওগো মেঘের দেশের মেঘপরি, আমার কথা একটু শোনো। মিলির কথাগুলো বাতাসে ভাসতে ভাসতে মেঘের দেশে চলে যায়।

মিলি মেঘপরিকে কাছে ডাকে। সে বলে, মেঘপরি, আমাদের পৃথিবীটা শুকিয়ে গেছে। বৃষ্টি আসে না অ…নে…ক দিন। এবার তুমি একটু ঝরো! মেঘপরি তবুও শুনতে পায় না মিলির কথা।

মিলি এবার কেঁদে কেঁদে বলে, মেঘপরি তুমি এতো নিষ্ঠুর কেন? আমরা সবাই কেঁদে কেঁদে বৃষ্টি চাইছি। তুমি কিছুতেই শুনছ না। ছোট্ট মেয়ে মিলির কান্নার শব্দে এবার মেঘপরির ঘুম ভাঙে।

মেঘপরির দয়া হয়। আহা, মানুষদের কি দুঃখ। পাখিদের কি কষ্ট। গাছেরা মরে যাচ্ছে। কচিকচি ঘাসেরা শুকিয়ে যাচ্ছে। বিলের পানি শুকিয়ে যাচ্ছে। মাথাভাঙা নদী মরে যাচ্ছে। সবাই আকাশের দিকে তাকিয়ে আছে। বৃষ্টি কখন আসবে!

মেঘপরির তখন ভীষণ কান্না পেল। সে হু হু করে কাঁদতে লাগল। কান্নার ফোঁটাগুলো ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হয়ে ঝরল। বৃষ্টি এলো গাছের পাতায়। নদীর বুকে। মাটির বুকে।

ছোট্ট মেয়ে মিলি খুশিতে নাচতে লাগল। সে বলল, সবাই দেখ দেখ, ঝিরিঝিরি বৃষ্টি নেমেছে। মেঘপরি আমার কথা শুনেছে।

পৃথিবীর মানুষরা খুশিতে নাচতে লাগল। মাঠ ভিজল। ঘাট ভিজল। সোনাপুকুর ভরে গেল কানায় কানায়। কাজল বিলে ছলাৎ ছলাৎ ঢেউ উঠল। তিরতিরিয়ে বয়ে চলল মাথাভাঙা নদী।

ছোট্ট মেয়ে মিলি কি করল জানো? ঝিরিঝিরি বৃষ্টির মাঝে সে ভিজতে ভিজতে বাগানে গেল। তার প্রিয় ফুলগাছদের সে অনেক আদর করল। গাছেদের বলল, এখন তোমাদের কেমন লাগছে শুনি?

গাছেরা ভিজতে ভিজতে বলল, কী মজা! কী মজা!

 

৩.
ধূসর পৃথিবী আবার প্রাণ ফিরে পেল। পাখিরা গান গাইল। কচিকচি ঘাসেরা সবুজ হলো। নদী-বিল-পুকুরে ঢেউ বয়ে গেল।

 

গ্লিটজ2 weeks ago

সিনেমার প্রচারণায় ক্রিকেট ম্যাচ!

অপু বিশ্বাসের নাচের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)
ঢালিউড1 week ago

অপু বিশ্বাসের নাচের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

গ্লিটজ2 weeks ago

এবার শিল্পী সমিতির নির্বাচনে শাকিব খান-ডিএ তায়েব প্যানেল!

অন্যান্য2 weeks ago

সাংবাদিক নয়, ইউটিউবার ভেবে ক্ষিপ্ত হন শাকিব খান

টালিউডের বিচ্ছেদ হওয়া যত নায়িকারা! ৫ নম্বরটা জানলে অবাক হবেন!
ঘটনা রটনা2 weeks ago

টালিউডের বিচ্ছেদ হওয়া যত নায়িকারা! ৫ নম্বরটা জানলে অবাক হবেন!

ইয়োগা
স্বাস্থ্য2 weeks ago

ইয়োগা বিষয়ে যে ৮টি তথ্য কেউ দেবে না আপনাকে

সুস্থ থাকতে চাইলে তাড়াতাড়ি বিয়ে করুন
সম্পর্ক2 weeks ago

সুস্থ থাকতে চাইলে তাড়াতাড়ি বিয়ে করুন

বিয়ের প্রথম রাতে নারী-পুরুষ উভয়েই মনে রাখবেন যে বিষয়গুলো
সম্পর্ক2 weeks ago

বিয়ের প্রথম রাতে নারী-পুরুষ উভয়েই মনে রাখবেন যে বিষয়গুলো

নিকুল কুমার মণ্ডল
গ্লিটজ1 week ago

তিন ছবি আমার জীবন বদলে দিয়েছে :নিকুল কুমার মণ্ডল

শাকিব খান
ঢালিউড1 week ago

গুঞ্জন নয়, এবার সত্যি নির্বাচন করছেন শাকিব খান

সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : তাহমিনা সানি
প্রকাশক : রামশংকর দেবনাথ
বিভাস প্রকাশনা কর্তৃক ৬৮-৬৯ প্যারীদাস রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা-১১০০ থেকে প্রকাশিত।
ফোন : +88 01687 064507
ই-মেইল : rupalialo24x7@gmail.com
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | রূপালীআলো.কম